1. admin@coxbazarnews24.com : admin :
  2. kaimulislamsuton@gmail.com : Kaimulislam :
শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০৬:৩৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পর্যটন স্পট বন্ধ থাকায় পর্যটন ব্যবসায়ীরা বিপাকে। রামুর গর্জনিয়াতে ইয়াবা সম্রাট ” লালুর ” ফিল্ম স্টাইলে চুরি। পরিবেশকর্মী এনামুল কবিরের বিরুদ্ধে অপপ্রচার, বাপা’র নিন্দা প্রকাশ নারিকেল চুরির বিষয় নিয়ে মহেশখালী মাতারবাড়ীর নয়া পাড়ায় দু-পক্ষের মধ্যে ঝগড়া। মাতারবাড়ীতে নৌকা প্রার্থীর ১১ দফা ইশতেহার ঘোষণা, পাল্টে যাচ্ছে ভোটের হিসাব ডিবি পুলিশের হাতে ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা নারী আটক। কক্সবাজারে কিশোর গ্যাং এর তালিকা তৈরী করা হচ্ছে – উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ । ওসি প্রদীপকে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার কারাগারে স্থানান্তর । কুতুবদিয়াতে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার চকরিয়াতে উপজেলা সমবায়ের দিন ব্যাপী কর্মশালা সম্পন্ন

কুতুবদিয়ায় বয়স্ক,বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতাভোগীরা নগদ একাউন্ট নিয়ে বিপাকে

আহমেমদ কবীর সিকদার, কুতুবদিয়া উপজেলা
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৩ মে, ২০২১
  • ৮০ বার পঠিত

কুতুবদিয়া উপজেলার বয়স্ক,বিধবা,প্রতিবন্ধি ভাতাভোগীরা নগদ একাউন্ট খোলে চরম বিপাকে পড়েছে। বিগত তিন মাস পূর্বে প্রত্যেক ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে ভাতাভোগীদের মাইকিং করে সমাজ সেবা অফিসার । কুতুবদিয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিস সূত্র জানা গেছে, সরকারি নির্দেশ মোতাবেক ভাতাভোগী ৮০২৮ জনের নামে রেজিষ্ট্রেশন পূর্বক সিম নিয়ে নগদে একাউন্ট করে। গত কয়েকদিন ধরে ভাতাভোগীদের নগদে ডাটা খোলা আছে কি না যাচাই করতে গিয়ে দেখা যায় অধিকাংশ ভাতাভোগীর নাম্বার রাজশাহী,খুলনা,সিলেট এলাকার বিভিন্ন ব্যাক্তিদের নামের তালিকা প্রকাশ করেছে নগদ সার্ভার অফিস। তা নিয়ে তোল পাট সৃষ্টি হয়। সূত্রে আরো জানা গেছে,প্রতি মাসে বয়স্ক ভাতা ৫০০টাকা, বিধবা ভাতা ৫০০ টাকা,প্রতিবন্ধি ভাতা ৭৫০ টাকা। ভাতা ভোগীরা ছয় মাস অন্তর অন্তর সমাজসেবা অফিস কর্তৃক ব্যাংক একাউন্টে একসাথে ভাতাগুলো প্রদান করে আসছেন। বর্তমানে সরকার ভাতাভোগীদের স্ব- স্ব নগদ একাউন্টে ভাতার টাকা প্রদানের জন্য যোগোপযোগী পদক্ষেপ গ্রহন করেন। নগদের কুতুবদিয়া উপজেলা টিম লিডার তানসেন দাশ বলেন, নাম্বার সংগ্রহ করে ভাতাভোগীদের নামে নগদ একাউন্ট করা হয়। সার্ভারে ডাটা এন্ট্রির সময় ভুল নাম্বার এন্ট্রি হয়েছে। বর্তমানে ভুল নাম্বারগুলো সংশোধন করা হচ্ছে। সমাজসেবা অফিস সূত্রে আরো জানা গেছে, কুতুবদিয়া উপজেলার ৮০২৮ জন ভাতাভোগী ছয় মাসে প্রায় তিন কোটি টাকা ভাতা পায়।আজকে সমাজসেবা অফিসে মোঃ দুলামিয়া সিকদার তার নগদ অ্যাকাউন্টটি টিক আছে কিনা দেখতে গিয়ে দেখেন তার নামে অন্য আর একজনের নাম্বার। তার পরে সমাজ সেবা অফিসার জনাব আমজাদ হোসেন নিজেই নাম্বারটি কারেকশন করে দেন।

এই বিষয়ে সমাজসেবা অফিসার আমজাদ হোসেনেকে জিজ্ঞাসা করা করলে বলেন যারা নগদ একাউন্ট করতে এসেছিলেন তারাই ভূলটা করেছে।এটার জন্য আমি দুঃখিত। এজন্য আমি ভাতা ভোগিদের লিস্ট গুলো ঠিকমতো পাটাইতে পারতেছিনা। এখন একটা একটা চেক করে দেখতে হচ্ছে। যেটা সমস্যা আছে সেটা ভাতাভোগীকে ডেকে সংশোধন করা হচ্ছে। এবং প্রতিটি মসজিদে বলে দেওয়া হয়েছে সকল ভাতাভোগীর মোবাইল যেন চালু রাখে। এখন চেষ্টা করছি দ্রুত চেক করে ঈদের আগে ভাতাভোগীদের টাকা যাতে দিতে পারি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2020 Coxbazarnews24
কারিগরি সহযোগিতায় :মোস্তাকিম জনি